কবিতা :সমাধিকার এম এ আসাদ

কবিতা

সমাধিকার
এম এ আসাদ

যুক্তি দিয়ে মুক্তি খোঁজা
চাতুরতার কাজ,
সকল কর্ম সবার সমান
শুনতে লাগে লাজ।

সৃষ্টি কালে স্রষ্টা দিছেন
ভিন্ন অবয়ব
গঠন এবং শক্তি রুপে
বিবেচিত সব।

হাল-চাষের ঐ শক্ত লাঙল
নারীর জন্য নয়
তেমনি নরম হাতের কর্ম
পুরুষ দিয়ে হয়!

বলতে পারো হতে পারে
অহরহ হচ্ছে,
বলোতো তবে হাত থাকতে
পা দিয়ে কে খাচ্ছে!

ব্যাতিক্রম নয়তো নিয়ম
প্রকৃতিকে মানো
নিয়ম ভেঙে অনিয়মে
শান্তি কেন হানো!

শক্তি সাহস থাকলে তোমার
দায়ীত্ব নাও কাধে
সুযোগ থাকতে কোন্ নারীতে হেসেল ঘরে রাধে?

সব পুরুষে হয়না পুরুষ
সব নারীতে নারী
সব রমনি হয়না যে মা
যতই পরুক শাড়ি।

বিজ্ঞান যতই উন্নত হোক
গর্ভে ধরবে মা,
মায়ের রুপে বাবার কর্ন
সমান হবেনা।

ফিডার দিতে পারবে বাবা
কোন রকম দুখে
ভেজাল মুক্ত শালদুধের স্বাদ
পারবে দিতে মুখে!

সমাধিকার মানে যদি
সমান কর্ম ধরো
ছোট বড় থাকবেে কেন
কেটে সমান করো।

নদীর এপাড় যেমন দেখো
ও পাড় ও ঠিক তাই,।
ওপাড় ভাবো অনেক সমান
এবড়ো থেবড়ো নাই।

এটাই তোমার ভুল ধারনা
ধারনা বদলাও
নিজের কর্মে শান্তি পাবে
সেটাই করে যাও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *